নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়কে গুজবের কারখানা আখ্যা দিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, সেখান থেকে যেসব কথা বলা হয়, তা বিশ্বাস করে না খোদ দলের নেতারাই।

রোববার নিজ বাসায় নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখছিলেন ওবায়দুল কাদের।

আগের দিন এক সংবাদ সম্মেলনে কাদেরের কঠোর সমালোচনা করেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী।

তিনি সেদিন বলেন ‘ওবায়দুল কাদের বিএনপির সমাবেশ শক্ত হাতে দমনের হুমকি দিয়েছেন। মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে জনরোষের ভয়ে ওবায়দুল কাদের সাহেবরা ঘরে বসে হুঙ্কার দিচ্ছেন। এই হুঙ্কার দিয়ে লাভ নেই। আপনাদের জারিজুরি সব ক্রমাগতভাবে ফাঁস হচ্ছে।’

জবাবে ক্ষমতাসীন দলের নেতা বলেন, ‘বিএনপি নেতাদের নিজস্ব কোনো বক্তব্য নেই, টেমস নদীর পার থেকে পাঠানো ফরমায়েসী বার্তা তোতাপাখির মত পড়েন। বিএনপির নয়া পল্টন অফিস হচ্ছে গুজবের ফ্যাক্টরি। সেই ফ্যাক্টরি থেকে আসা অপপ্রচারের বাণীতে খোদ বিএনপির নেতাদের মধ্যেই অবিশ্বাসের দেয়াল তৈরি করছে।’

বিএনপি যে আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে, তাকে আওয়ামী লীগ ভয় পায় না বলেও জানিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘মিডিয়ায় আন্দোলনের ঝড় তুললেও বাস্তবে বিএনপি নেতারা রাজপথে থাকেন না। কেউ কেউ মাঠে থাকলেও ফেসবুকে দেয়ার জন্য ছবি তোলেন, এরপর পালানোর পথ খোঁজেন।’

আগের দিন রিজভী তার দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করে আনার ঘোষণা দেন।

এর জবাবে কাদের বলেন, ‘‘বক্তব্য-বিবৃতিতে বেগম খালেদা জিয়ার জন্য বিএনপি নেতারা প্রাণ দেয়ার বাসনা ব্যক্ত করলেও তাঁর মুক্তির জন্য ঢাকা শহরে ৫০০ লোকের একটি মিছিলও করতে দেখেনি জনগণ।

‘তারা তাদের নেত্রীর মুক্তি ও চিকিৎসার চেয়ে রাজনীতি করেছে বেশি।’

আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘বিএনপির নেতাদের বক্তৃতায় কথামালার ফুলঝুরি ছুটলেও তারা রাজপথকে ভয় পায়, আন্দোলনকে ভয় পায়। এখন তারা জনগণকেও ভয় পায়। জনবিচ্ছিন্ন হয়ে বিএনপি ভয়ের বৃত্তে এখন আবর্তিত হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘পাঁচশ সদস্যের ঢাউস কমিটি থাকা সত্ত্বেও একটি বড় মিছিল যারা করতে পারে না, তাদের মেরুদণ্ডের শক্তি সম্পর্কে জনগণ বুঝতে পেরেছে বলেই নির্বাচনে তাদেরকে ভোট দেয় না।’

বিএনপি নেতাদের সতর্ক করে কাদের বলেন, ‘তাদের কোনো অপকর্ম বিনা চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দেয়া হবে না। জেল, জুলুম, নির্যাতন আর রাজপথ থেকে উঠে আসা জনগণের সংগঠন আওয়ামী লীগকে আন্দোলনের ভয় দেখিয়ে কোন লাভ নেই।’

ছয় সিটি নির্বাচনে বিএনপির পরাজিত মেয়র প্রার্থীরা যে কর্মসূচির ডাক দিয়েছেন, তা সফল হবে না বলেও দাবি করেন কাদের।

বলেন, ‘নির্বাচনে ব্যর্থ ও পারাজিত হয়ে বিএনপির পরাজিত নেতারা এখন শুরু করেছে হাঁক ডাক। তাদের মাঠ গরমের অপচেষ্টাও সফল হবে না।’

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/বি

Sharing is caring!