মো. সালেহ উদ্দিন সবুজ

আবদুল ওয়াদুদ পিন্টুকে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারশনে কেন দরকার ? এ প্রশ্নের একটাই উত্তর । ফুটবলের উন্নয়নের জন্য দরকার ।
নোয়াখালীর ক্রীড়াঙ্গনের গর্ব আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু আপাদমস্তক একজন ফুটবল প্রেমি । নিজে ছিলেন প্রাক্তন ফুটবলার, ফুটবল খেলাকে যিনি হৃদয়ে ধারণ করেছেন । বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট হলেও তিনি সবসময় ফুটবল খেলাকেই জনপ্রিয়তার তুঙ্গে স্থান দিয়েছেন । একজন খেলা পাগল মানুষ আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু ।

বাফুফে জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে অনেক আগেই জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনকে আলাদা করে দিয়েছে । উদ্দেশ্য ছিলো ফুটবলকে জনপ্রিয় থেকে জনপ্রিয় করে তোলা হবে । কিন্তু হয়েছে উল্টো ! ফুটবল এখন জনপ্রিয়তার বিচারে একদম তলানীতে ঠেকেছে ।

তবুও তিনি নোয়াখালীর ফুটবল খেলার উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখেছেন । যেটি নোয়াখালীর যে কোন ফুটবলারকে জিজ্ঞেস করলেই অনাসায়ে স্বীকার করবে । ফেডারেশন থেকে জেলা পর্যায়ে খুব বেশি টুর্নামেন্টের আয়োজনের উদ্যোগ গ্রহণ করা না হলেও তিনি নিজ উদ্যোগে নোয়াখালীতে ফুটবলকে জাগিয়ে রেখেছেন । যার ফলশ্রুতিতে তিনি এবার নোয়াখালী জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতির দায়িত্ববারও পেয়েছেন ।
মহামারী করোনকালে আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল ক্রীড়াবিদদের পাশে থেকেছেন , চেষ্টা করেছেন যথাসাধ্য সহযোগিতার।

নোয়াখালীতে জেএমএস ফুটবল লীগ আয়োজনেরও সফল উদ্যোক্তা তিনি । সবকিছু মিলিয়ে জনপ্রিয়তার তলানিতে থাকা ফুটবলকে নোয়াখালীতে প্রাণের সঞ্চার দিয়ে রেখেছেন তিনি।

এবার এই প্রাণের জোয়ার সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে চান তিনি । আজন্ম ফুটবল খেলা পাগল মানুষটি এবার বাফুফে নির্বাচন ২০২০ এ বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ ক্লাব এসোসিয়েশন মনোনীত সমন্বয় পরিষদ প্যানেল থেকে সদস্য প্রার্থী হয়েছেন তিনি । তার ব্যালট নং ০৩ । আগামীকাল ( ০৩ অক্টোবর ) সদস্য পদে নির্বাচিত হয়ে তিনি ফুটবলের জন্য কাজ করে যেতে চান । ভোটার তথা দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু।

  • সংবাদ সংলাপ/এসইউ/রা

Sharing is caring!