নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ২৬ মার্চকে ‘বাংলাদেশ ডে’ হিসেবে ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি।

বাংলাদেশ সময় শনিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন শহরটির মেয়র মুরিয়েল বাউজার। সেই সঙ্গে স্বাধীনতার ৫০ বছর ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের জনগণ ও সরকারকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হচ্ছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করেন বাউজার।

তবে ওয়াশিংটন ডিসি ‘বাংলাদেশ ডে’ প্রতি বছর উদযাপন করবে কি না এ ব্যাপারে স্পষ্ট কিছু উল্লেখ করা হয়নি বিজ্ঞপ্তিতে। পরিষ্কার করে কিছু জানায়নি ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসও।

এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য বিভাগের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার তৌহিদুল ইসলাম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘যেহেতু বাংলাদেশ ডে ঘোষণা করা হয়েছে, নিশ্চয়ই তা এক বছরের জন্য নয়। এখন থেকে প্রতি বছরই তারা ২৬ মার্চকে বাংলাদেশ ডে হিসেবে পালন করবে বলেই এ ঘোষণা দিয়েছে।’

এর আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভার নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে প্রস্তাব তোলা হয়।

কংগ্রেসে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস এলাকা থেকে নির্বাচিত ডেমোক্র্যাট কংগ্রেসওম্যান আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিয়ো-অরটেজ ‘কমেমরেটিং দ্য ফিফটিয়েথ অ্যানিভার্সারি অফ বাংলাদেশ’স ইন্ডিপেন্ডেন্স’ শিরোনামের এই প্রস্তাব উত্থাপন করেন গত ১৬ মার্চ।

এতে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণার পর যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়া ও ত্যাগ স্বীকারকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাহসিকতার বিষয়টিও তোলে ধরা হয় প্রস্তাবে।

এছাড়া, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ভিডিও বার্তা পাঠিয়েছেন বলেও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়।

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/দু

Sharing is caring!