স্পোটর্স ডেস্ক :

জুভেন্টাসের পর্তুগীজ সুপারস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে ২০২০-২১ মৌসুমে সিরি-আ লিগ শেষ করেছেন। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে তিনি একইসঙ্গে ইউরোপের শীর্ষ তিন লিগ সিরি-আ, প্রিমিয়ার লিগ ও লা লিগায় এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন।

৩৬ বছর বয়সী রোনালদো এবারের ইতালিয়ান লিগে ২৯ গোল করেছেন। তার দল জুভেন্টাস টেবিলের চতুর্থ স্থানে থেকে মৌসুম শেষ করেছে। জুভেন্টাসের নয় বছরের আধিপত্যকে খর্ব করে দিয়ে এবার সিরি-আ শিরোপা জয় করেছে ইন্টার মিলান।

ইতালিতে এনিয়ে তৃতীয় মৌসুম খেলেছেন রোনালদো। ২০১৮-১৯ মৌসুমে তিনি ২১ গোল করেছিলেন। ঐ আসরে সাম্পদোলিয়ার ফরোয়ার্ড ফ্যাবিও কুয়াগলিয়েরা রোনালদোর থেকে পাঁচ গোল বেশী করে কাপোক্যানোনিয়েরে  ট্রফি জিতেছিলেন।

এরপরের বছর ৩১ গোল করেও ইউরোপীয়ান গোল্ডেন সু বিজয়ী ল্যাজিও তারকা সিরো ইমোবিলের সঙ্গে পেরে উঠেননি। ইমোবিলে সিরি-আ লিগে তার থেকে পাঁচ গোল বেশী করেছিলেন।

সব মিলিয়ে সিরি-আ লিগের ৯৭ ম্যাচে তিনি করেছেন ৮১ গোল। আর সব ধরনের প্রতিযোগিাতয় জুভেন্টাসের হয়ে ১৩৩ ম্যাচে করেছে ১০১ গোল। ২০১৯ ও ২০২০ সালে পরপর দুই বছর তিনি সিরি-আ বর্ষসেরা ফুটবলার মনোনীত হয়েছিলেন।

২০০৭-০৮ মৌসুমে রোনালদো প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩১ গোল করেছিলেন। ঐ বছর তিনি প্রথমবারের মত ব্যালন ডি’অর জয়ের কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন। ঐ মৌসুমে ইউনাইটেডের হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় রোনালদো ৪২ গোল করেছিলেন।

ইউনাইটেড লিগ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয় করেছিল। সেটাই ছিল ক্যারিয়ারে রোনালদোর প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা।

২০০৯ সালে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেবার আগে রোনালদো ইউনাইটেডের হয়ে ২৯২ ম্যাচে করেছেন ১১৮ গোল। ইংল্যান্ডের তিনি দুইবার ২০০৬-০৭ ও ২০০৭-০৮ মৌসুমে খেলোয়াড় ও ফুটবল রাইটার্স এসোসিয়েশনের ভোটে বর্ষসেরা খেলোয়ার মনোনীত হয়েছিলেন।

তিনবার তিনি লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে পিচিচি ট্রফি শিরোপা জয় করেছেন। এর মধ্যে প্রথমটি এসেছিল ২০১০-১১ মৌসুমে। ঐ মৌসুমে রোনালদো ৪০ গোল করেছিলেন। বার্সেলোনা লিগ শিরোপা জিতলেও মাদ্রিদ ছিল টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে। তবে কোপা দেল রে জয় করে রোনালদো স্পেনে প্রথম শিরোপা জয় করেছিলেন।

২০১৩-১৪ মৌসুমে আবারো ৩১ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতা হন। ঐ মৌসুমে মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতে আর রোনালদো জিতেন ব্যালন ডি’অর। এই মৌসুমেই তিনি লা লিগার সেরা খেলোয়াড় মনোনীত হয়েছিলেন। ক্যারিয়ারে একবারই তিনি এই স্বীকৃতি পেয়েছেন।

পরের মৌসুমও তিনি ৪৮ গোল করে পিচিচি ট্রফি জয় করেন। কিন্তু লিওনেল মেসি বার্সাকে লা লিগা, কোপা ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা উপহার দেয়ায় তার কাছে ব্যালন ডি’অরের ট্রফি হারান রোনালদো।

২০১৮ সালে রোনালদো মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেন। লস ব্ল্যাঙ্কোসদের হয়ে ৪৩৮ ম্যাচে তিনি ৪৫০ গোল করে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন। লা লিগায় তিনি ২৯২ ম্যাচে করেছেন ৩১১টি গোল। মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চারটি শিরোপাও জয় করেছেন।

১৩৪ গোল করে এই পর্তুগীজ সুপারস্টার চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও সর্বোচ্চ গোলাদাতার তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন। সাতটি ভিন্ন ভিন্ন আসরে তিনি সর্বোচ্চ গোলদাতার স্বীকৃতি পেয়েছেন।

চারবার ইউরোপীয়ান গোল্ডেন শ্যু এ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন রোনালদো।ৎ

  • সংবাদ সংলাপ/এসইউ/বি

Sharing is caring!