মোহাম্মদ সোহেল, নোয়াখালী :
নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা বড় ভাই সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, আমার কাছে খবর আছে। আপনি মনে করছেন আপনি সব। আপনারে করুণা করে রাখছে প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা একেবারে ইয়ে হয়ে যাননি। যে আপনারে ছাড়া দল চালাতে পারবেন না। আপনি আমাকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে রক্ষা করেন নাই। আপনি ডুয়েল রোল প্লে করেন। আপনার স্ত্রী হচ্ছে এখন আপনার রাজনীতির নিয়ামক শক্তি। আপনার সারা মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি। উপর থেকে নিচ পর্যন্ত, আপনার বাসার চাকরাণী তারা পর্যন্ত মাসোয়ারা খায়। আমি প্রমাণ করতে না পারলে হিজরত করুম।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকালে নিজের ফেইসবুক লাইক ফেইজ থেকে লাইভে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় মেয়র মির্জা আরো বলেন, এক সপ্তাহের মধ্যে সব ঠিক করেন, না হয় পরিণতি ভয়াবহ হবে। মরবেন তো, অপবাদের বোঝা নিয়ে মরতে হবে। সম্মান নিয়ে বাঁচতে পারবেন না। আপনার বউ যেসব করছে তাতে প্রমাণ হয়, বাংলাদেশের ১০জন দুর্নীতিবাজের মধ্যে একজন আপনার স্ত্রী। যদি প্রমাণ করতে না পারি হিজরত করুম।

কাদের মির্জা বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নাম আগে কেউ শুনেছে বলে মনে হয় না। কপাল ভালো মন্ত্রী হয়েছেন। তার কর্মীরাও বলে আমাদের নেতা মন্ত্রী হবে আমরা ভাবিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, আপনার কর্মীরা বলে আপনি ভালো মানুষ। আপিনি যেহেতু ভালো মানুষ। আপনি নেত্রীকে বলে বায়তুল মোকাররম মসজিদে ইমামতি করেন।

বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৪টায় ছেলে মির্জা মাশরুর কাদের তাশিককে সাথে নিয়ে চিকিৎসার জন্য আমেরিকার উদ্দেশ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার কথা ছিল কাদের মির্জার।

নিজের অনুসারীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমেরিকা সফর বাতিল করে এলাকায় ফিরে যান তিনি। তার বিদেশ সফর বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাদের মির্জার অনুসারী আমেরিকা প্রবাসী আইয়ুব আলী। তারও মেয়রের সঙ্গে আমেরিকায় যাওয়ার কথা ছিল।

আইয়ুব আলী বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় মেয়র চিকিৎসার জন্য আমেরিকার উদ্দেশ্যে বিমানবন্দরে যাওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় জানতে পারেন তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা বৈঠক করে হামলার পরিকল্পনা করছেন।

বিষয়টি জানার পর নিজের অনুসারীদের নিরাপত্তার বিষয়টি চিন্তা করে বিদেশ যাওয়া বাতিল করে সফরসঙ্গী ও অনুসারীদের নিয়ে বসুরহাট রওনা দিয়ে রাত পৌনে ২টার দিকে পৌরসভা কার্যালয়ে পৌঁছান কাদের মির্জা।

এর আগে বড়ভাই সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরামর্শে চিকিৎসার জন্য আমেরিকায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

আগামী ২৩ জুন তার দেশে ফেরারও কথা ছিল। এজন্য মঙ্গলবার সকালে মা-বাবার কবর জেয়ারত করে আমেরিকার উদ্দেশ্যে কোম্পানীগঞ্জ ছাড়েন তিনি।

উল্লেখ্য, বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর নিজের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণার সময় দলের সংসদ সদস্যদের বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা করে সারা দেশে আলোচনায় আসেন কাদের মির্জা।

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/বি

Sharing is caring!