নোয়াখালী প্রতিনিধি :
২০১৬ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি থেকে মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী এবার আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন চেয়ে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ এবং জমা দিয়েছেন। এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের কাছ থেকে সোমবার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে একই দিন মনোনয়নপত্র পুরন করে জমা দেন নোয়াখালী সদর উপজেলার ০৯ নম্বর কালাদরাপ ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাইফুদ্দীন বাবুল।

কালাদরাপ ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মো. ইউনুছ বলেন, আসন্ন কালাদরাপ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ১১জন দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শেষে মনোনয়ন চেয়ে জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে সাইফুদ্দীন বাবুল ২০১৬ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে মনোনীত ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছেন। ওই নির্বাচনে পরাজিত হয়ে সাইফুদ্দীন বাবুল যোগ দেন আওয়ামী লীগে। আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়ার সাড়ে তিন বছরের মাথাই তিনি এবার নৌকা প্রতীক চেয়ে দলের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আরেকজন নুরুল আমিন। তিনিও বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন।

কালাদরাপ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক নোমান ছিদ্দিকী বলেন, দল যদি বিএনপির কাউকে মনোনয়ন দেন, তাহলে আমাদের ছাত্রলীগের কি করার আছে। আমাদের তো নৌকারই ভোট করা লাগবে। তবে আমরা চাই দলের পরীক্ষিত নেতার হাতেই নৌকা প্রতীক দেওয়া হোক।

আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী সাইফুদ্দীন বাবুল বলেন, আমি পারিবারিকভাবেই আওয়ামী পরিবারের সদস্য। মাঝখানে রাগ-অভিমানের কারণে বিএনপিতে যোগ দিয়ে ধানের শীষের হয়ে ভোট করেছি। এখন আবার আদর্শিক টানে আওয়ামী লীগে ফিরে এসেছি। দল মনোনয়ন দিলে তো ভালো, না হলে আমি উন্মুক্ত হিসেবেই ভোট করবো।

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/রা

Sharing is caring!