মোহাম্মদ সোহেল, নোয়াখালী :
নোয়াখালীতে প্রতিদিন গড়ে বিনামূল্যে ৩০জন সম্ভাব্য যক্ষ্মারোগীর এক্স-রে, ১৬জনের জিনএক্সপার্ট ও ৬জনের করোনা সনাক্তের জন্য এন্টিজেন্ট টেস্ট করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। নোয়াখালী জেলা শহরের হাউজিং সেন্ট্রাল রোডে অবস্থিত ব্র্যাক যক্ষ্মারোগ নির্ণয় কেন্দ্রে সরকারি সহযোগিতায় এসব পরীক্ষা করানো হয়। ২০১৮ সাল থেকে জেলায় এই সেবা কার্যক্রম শুরু করা হয়।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সরেজমিন ব্র্যাক যক্ষ্মারোগ নির্ণয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, রোগীরা বিনামূলোর এসব শারীরিক পরীক্ষা গ্রহন করছেন। গত সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে ব্র্যাকের এই রোগ নির্ণয় কেন্দ্র পরিদর্শন করেন নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।

যক্ষ্মারোগ নির্ণয় কেন্দ্র পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক বলেন, সরকারের সহযোগিতায় মানুষকে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করছে ব্র্যাক। এটি প্রশংসার দাবিদার। আশা করা যাচ্ছে, এ সেবা নিয়ে মানুষ উপকৃত হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ব্র্যাক জেলা সমন্বয়ক মো.নুরুজ্জামান, এরিয়া সুপারভাইজার-টিবি মো. নুরুল আলম, ব্র্যাকের আইনজীবি মো. ফরহাদুল ইসলাম প্রমূখ। পরে দুপুরে ব্র্যাক নোয়াখালীর আঞ্চলিক কার্যালয়ে বিভিন্ন কর্মসূচির বিষয়ে আলোচনা করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।

ব্র্যাক জেলা সমন্বয়ক মো.নুরুজ্জামান বলেন, আমরা সরকারের সহযোগিতায় এখানে বিনামূল্যে প্রতিদিন গড়ে ৩০জন করে প্রতি মাসে ৭৫০জন সম্ভাব্য যক্ষ্মারোগীদের এক্স-রে, প্রতিদিন গড়ে ১৬জন করে মাসে ৪০০জনের জিনএক্সপার্ট টেস্ট ও প্রতিদিন গড়ে ৬জন করে মাসে ১৫০ জনের করোনা সনাক্তের জন্য র‌্যাপিড এন্টিজেন্ট টেস্ট করে থাকি। তিনি বলেন, যাদের যক্ষ্মারোগ সনাক্ত হয়, তাদেরকে আমরা বিনামূল্যে পূর্ণ মেয়াদে চিকিৎসা প্রদান করে আসছি। আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/বি

Sharing is caring!