সংলাপ ডেস্ক :

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় ও আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনি তার সম্পত্তি, গাড়ি ও আয় নিয়ে মুখ খুললেন। বুধবার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এসব বিষয় নিয়ে লিখেছেন তিনি। স্ট্যাটাসে বড় শিল্পীরা তাকে নিয়ে যে গসিপ করেছেন, তা নিয়েও বলেছেন তিনি।

পরীমনি ফেসবুকে লিখেছেন,

‘আজ এসব নিয়েও লিখতে হচ্ছে ভাবতে কষ্ট হচ্ছে সত্যি।

যখন বড় বড় সম্মানিত শিল্পীরাও পিছে রটানো গসিপ নিয়ে আমার দিকে আঙ্গুল তুলতেও ছাড়লেন না আজ।

একবার একটু জেনে নিতেই পারতেন চাইলে।

যাইহোক, এসবের একটু পরিত্রাণ দরকার এবার।

আমার একটি মাত্র হ্যারিয়ার গাড়ি। যেটি ব্যাংক লোনে চলছে।

এবং আমি একটি ভাড়া ফ্ল্যাটে থাকি।

আমি আমার আয়ের হিসেব সরকারের কাছে অবশ্যই প্রদান করি। আমি নিয়মিত একজন করদাতা।

আমার কোনো ১০ কোটি টাকার বাড়ি বা ৫/৪/৩ কোটি (যেমন টা আপনারা বানালেন আরকি) টাকার গাড়িও নেই।

আপনারা দোয়া করবেন, আমাকে নিয়ে আপনাদের এই মহান উচ্চ আশা পূরণ করব ইনশাআল্লাহ।

মিথ্যা বা গুজব ছড়ানোর জন্য আপনারা কতোটুকু জয়ী হলেন ভেবে দেখবেন প্লিজ।

আপনাদের পরীমনি।’

মঙ্গলবার টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী ও পরিচালক অরুণা বিশ্বাস একটি এফএম রেডিওর সাক্ষাৎকারে পরীমনিকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘একজন শিল্পী কত টাকা ইনকাম করলে পাঁচ কোটি টাকার গাড়ি চালাতে পারে, চার কোটি টাকার বাড়ি কিনতে পারে।’

তিনি পরীমনিকে উদ্দেশ করে আরও বলেন, ‘দেশে কি দুদক নাই? দুদকের মনে প্রশ্ন জাগে না? এই টাকাগুলো কোথা থেকে আসতেছে? কীভাবে আসতেছে? একজন শিল্পী কোথা থেকে এত টাকা পায়?’

অরুণা বিশ্বাস ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘ওদের কোন ছবিটা হিট করেছে? আমাদের তো হাজার হাজার ছবি হিট করেছে।’

পরীমনির ক্লাবে যাওয়া নিয়ে অরুণা বিশ্বাস বলেন, ‘লেটনাইট করে একটা মানুষ কোথাও যেতেই পারে, এটা তার স্বাধীনতা। কিন্তু গিয়ে আমি কী করব এটাও আমার নিয়ন্ত্রণে থাকতে হবে। কারণ এটা বাংলাদেশে। এটা আমেরিকা-কানাডা নয়। বাংলাদেশের একটা কালচার আছে। আর আমেরিকা-কানাডাতে গিয়েও বারে মাতলামি করলে পুলিশ গ্রেপ্তার করবে, সে যত ক্ষমতাধর মানুষই হোক না কেন। আমাদের আইনের মধ্যে থাকতে হবে।’

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/স

Sharing is caring!