নোয়াখালী প্রতিনিধি :
নোয়াখালীর ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রে এক রোহিঙ্গা শিশুকে (০৭) ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে।
সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর)  দুপুরে ভিকটিমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরআগে  রোববার দুপুরে ওই শিশুর পিতা বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভাসানচর থানায় মামলা দায়ের করেন।
পুলিশ সুপার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, রোহিঙ্গা শিশুটি ভাসানচর আশ্রয়ন প্রকল্প-৩ এ বসবাস করেন।  রোববার বেলা ১১টার দিকে ১৪নং ক্লাস্টার এলাকায় সে খেলাধুলা করতে যায়। খেলাধুলার একপর্যায়ে  একজন অজ্ঞাতনামা পুরুষ ওই শিশুকে অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে ১৪নং খালি ক্লাষ্টারের এইচ-১২ রুমের ভিতরে ডেকে নিয়ে বাদীর মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে দুপুর ১২টার দিকে অপর একজন রোহিঙ্গা শিশু এসে তার পরিবারকে জানায় যে, তাদের মেয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছে। তাৎক্ষণিক তার পিতা ১৪নং ক্লাষ্টারের এইচ-১২ রুমের ভিতরে খাটের ওপর তাকে বেহুশ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। পরে তাকে দ্রুত অন্যান্য রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ভাসানচর ২০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় ডাক্তার তাকে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল প্রেরণ করেন। ভাসানচর থানা পুলিশের সহায়তায় ভিকটিমের উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি  করা হয়। ভিকটিম   জানায় ধর্ষণকারীকে দেখলে সে চিনতে পারবে।
নোয়াখালীর পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় ভাসানচর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা হয়েছে। যাহার মামলা নং- ৩।
  • সংবাদ সংলাপ/এসইউ/রা

Sharing is caring!