সংলাপ প্রতিবেদক :

সাভারে রানা প্লাজা ধসে নিহত শ্রমিকদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্বালন করেছে হতাহত শ্রমিকদের স্বজনরা ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন। একই সঙ্গে তারা ২০১৩ সালে রানা প্লাজায় নিহতদের স্বজন ও আহতদের ক্ষতিপূরণ প্রদান এবং মালিকের শাস্তিরও দাবি জানিয়েছেন।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে সাভারে রানা প্লাজার বেদির সামনে মোমবাতি জ্বালিয়ে তাদের শ্রদ্ধা জানানো হয়। মোমবাতি প্রজ্বালনে উপস্থিত ছিলেন গার্মেন্টস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সুজন, রতন হোসেন মোতালেবসহ আরো অনেকেই।

এ সময় নিহত ও নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজনদের কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে রানা প্লাজা এলাকা। এছাড়া নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়ার আয়োজন করা হয়। নিহত শ্রমিকদের পরিবার ও শ্রমিক সংগঠনগুলো জানায়, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার নয় বছর অতিবাহিত হওয়ার পরও ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করা হয়নি। রানা প্লাজার দুর্ঘটনায় সরকার কোনোভাবেই দায় এড়াতে পারে না। এটাকে দুর্ঘটনা বললে ভুল হবে, এটা একটি হত্যাকাণ্ড। ক্ষতিগ্রস্ত সবার প্রয়োজনীয় সহায়তা, পুনর্বাসন এবং আহতদের দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা দেয়ারও আহ্বান জানান তারা।

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাংগঠনিক সম্পাদক খাইরুল মামুন মিন্টু বলেন, রানা প্লাজার ওই ভবনে শুধু রানার কারখানাই ছিল না। এখানে আর কয়েকজন মালিকের কারখানা ছিল। সেই কারখানাগুলোর মালিকরা কৌশলে সব রানার ওপর ফেলে দিয়েছে। এখন রানা কারাগারে বাকি মালিকরা অনায়াসে বিভিন্ন স্থানে কারখানা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাই সবাইকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

  • সংবাদ সংলাপ/এমএস/স

 

Sharing is caring!